আমার আমি

“Hospital philosophy”

Grilled Radicchio Salad

[ যাহারা হাসপাতালে ছিলেন না কখনো তাহাদের জন্য]

মধ্যরাতে ঘুমিয়ে ছিলেন,শোনবেন, হঠাৎ কান্নার শব্দ- জানতে পারবেন বাবা – মায়ের একমাত্র ছেলেটা, যে এক্সিডেন্ট করেছিল – সে মারা গেছে।

অথবা শোনবেন – গাইনী ও অবসের হেড নার্স বলে গেল মা এর অবস্থা ক্রিটিক্যাল– কিছু বলা যাচ্ছে না।
আল্লাহ কে ডাকুন।

ডাক্তার বলছেন- পেশেণ্ট এর পা কেটে ফেলে তাকে বাঁচানো গেছে –
সবাই শোকরিয়া করছে যে যাক বাবা- পা গেলেও বাঁচানো গেল।

দেখবেন স্ট্রেচারে করে মৃত রোগীকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে- নির্লিপ্ত ওয়ার্ড বয়….।
সদ্য পাস করা মেডিকেল অফিসারের হয়তবা একটু মন খারাপ – ব্যস!

হাসপাতালে গেলেই আপনি বোঝতে পারবেন
আপনি সুস্থ ভাবে, সব হাত -পা নিয়ে জীবিত আছেন –
এর চেয়ে বড় নেয়ামত – আর কিছু হতে পারে না।

-কিচ্ছু না।

অন্যভাবে বলি –
এ নাই!
সে নাই –
লাক নাই,
মুড ভাল নাই –
কত কিছু নাই—–

ভাইরে,–
সুস্থ আছি-
ভাল আছি-
হাত-পা অক্ষত আছে –

এই বা কম কি।

– যখনই এমন লাগবে- হাসপাতাল ঘুরে আসবেন–
আর এমন লাগবে না- আমার বিশ্বাস।

মির্জা গালিবের একটা শায়েরি এ রকম :-

” Haathon ki lakeeron pay mat ja ae ghalib,
Naseeb unke bhi hote hain jinkey haath nahi hote.

[ ‘Don’t go by the lines on the palm of your hand Ghalib, luck is bestowed even on those who don’t have hands.’]…

বার বার মনে পড়বে সুরা – আর – রহমানের আয়াতটা

”অতএব, তোমরা উভয়ে তোমাদের পালনকর্তার কোন কোন নেয়ামতকে অস্বীকার করবে?”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *