প্রফেশনালিজম ও আমরা

“Keep your Ego so big (elephant size) that you cannot able to take it in your office.”

একবার আমার বিশ্ববিদ্যালয় এর এক শিক্ষিকা “ I can’t take it anymore” বলে ক্লাস ছেড়ে চলে গিয়েছিল …
সবাই বলল্লাম, আহারে ! ম্যাডাম প্রফেশনালিজম জানেন না—
পরে হাত- পা ধরে নিয়ে আসতে হয়েছিল…
আজ জানি,প্রফেশনালিজম জানলে কুত্তা পা কামড়ে দিলে ও বলতো
“আরে ব্যাপার না”
এত্তদিন পর বুঝলাম …ম্যাডামের আবেগ তখনো “professional” হয়ে উঠতে পারে নি…

হলের এক ভাই একবার মজা করে বলেছিলেন –

ডাকাতি করতে যাইয়া শুধু ডাকাতিই করছে, কাউকে ধর্ষন করে আসে নাই এইটা প্রফেসনালিজম ! –

In a good sense professionalism is-
“How we do things effectively in spite of emotional barrier “

অনেকটা -A professional is someone who can do his best work when he doesn’t feel like it

তবে ,প্রফেশনালিজম আমরা বাঙ্গালিদের ক্ষেত্রে “পরনিন্দা” তে থেমে যায় ।
পেশাদ্বারিত্বের সাথে আমরা কাজটা করি!
কে- কাকে -কিভাবে “কোরবানির বকরী” বানাবে এ নিয়ে লড়াই!
ধরুন , অফিসে কেউ আপনাকে বললঃ
“আমি তাকে মোটেই সহ্য করি না… অসহ্য লাগে!”
একটু পরের দৃশ্য –
যাকে নিয়ে বলা … প্রফেশনালিজম এর খাতিরে “ তার সাথে কফি খেতে খেতে গল্প করতে হবে”

আহ্লাদে আটখানায় ” আরে ভাই কতদিন দেখিনা” বলতে হবে!
সকল প্রফেসনালকে তো এই ”বাই প্রফেসন ইথিক্স ” মেনে চলতেই হয়
তাই না?
আহমদ ছফা “গাভী বৃত্তান্ত “ বইতে প্রোফেসনাল চাটুকারদের গো -শালা পর্যন্ত নিয়ে গিয়েছেন…
জানি না কবে আমাদের গু –খানা তে যেতে হয়…
তবে আমি যা বুঝি- “Professionalism is an art of hipocracisy”
টিকিয়া থাকতে হলে হয়তবা কাজ করে যাও …

নতুবা ভণ্ডামি করে যাও…!
তবে “ অতিকায় হস্তি লোপ পাইয়াছে … তেলা পোকা টিকিয়া আছে…
তবে এমন টিকিয়া থাকায় কি “বেঁচে” থাকার স্বাদ পাওয়া যায় ?
সিম্পল পলিসি-“ Be a part of system or out of system”

তাই আমরা  মানুষ  থেকে দিন দিন প্রফেশনাল হচ্ছি!

About author

Author
Ashfaque Abir

Post a comment